হালুয়াঘাটে ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের স্বরণে ……

ওমর ফারুক সুমন, হালুয়াঘাট(ময়মনসিংহ)থেকেঃ ভাষা আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃত শহীদ আব্দুল জব্বারের জন্মস্থান ময়মনসিংহের গফরগাঁও হলেও হালুয়াঘাটে কেটেছে তার পারিবারিক জীবন। শহীদ আব্দুল জব্বারের জীবদ্দশাতেই তাঁর পুরো পরিবার হালুয়াঘাটের শিমুল কুচি গ্রামে স্থায়িভাবে বসবাস করতে শুরু করেছিলেন ।

এখানেই রয়েছে তাঁর মাতা, স্ত্রী ও সহোদর তিন ভাই। এখনো জীবিত আছেন আব্দুল জব্বারের সহোদর ছোট ভাই আব্দুল মতিন, একমাত্র সন্তান মুক্তিযোদ্ধা (অবঃ) সৈনিক মোঃ নুরুল ইসলাম(বাদল) সহ অনেক আত্বীয় স্বজন। প্রতিবছর ২১ শে ফেব্রুয়ারি আসলেই যথাযোগ্য মর্যাদায় হালুয়াঘাটেও দিনটিকে পালন করে থাকে ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের আত্বীয় স্বজন ও এখনো জীবিত থাকা হালুয়াঘাটের আব্দুল জব্বারের পরিবারবর্গ। এ বৎসরেও নেওয়া হয়েছে শহীদের স্বরণে মিলাদ মাহফিল সহ নানা কর্মসূচী।

এছাড়া হালুয়াঘাটে ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের নামে গড়ে উঠেছে একটি উচ্চ বিদ্যালয়, মসজিদ ও একটি ফাউন্ডেশন। শহীদের ভাতিজা মোঃ আতিক উল্লার উদ্যোগে ২০০৭ সাল থেকে গড়ে উঠেছে “ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার ফাউন্ডেশন”। উক্ত ফাউন্ডিশনটি ২০১০ সাল থেকে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয় থেকে নিবন্ধন লাভ করে শহীদ আব্দুল জব্বারের নামে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড করে আসছে।

Advertisements

এছাড়া ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের উদ্যোগে উক্ত ফাউন্ডিশন চত্বরে একটি শহীদ মিনার নির্মিত হয়েছে। এ বিষয়ে শহীদের ভাতিজা আতিক উল্লার সাথে কথা বললে তিনি জানান, প্রতিবছর ২১ শে ফেব্রুয়ারির দিনে উপজেলা প্রশাসন থেকে ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের নামে মিলাদ মাহফিলের জন্যে ৫ হাজার করে টাকা দিয়ে থাকেন।

তার দাবী এই ৫ হাজার টাকার স্থলে যদি ১০ হাজার টাকার ব্যাবস্থা হতো তাহলে দিনটিকে আরো সুন্দর ভাবে উদযাপন করতে পারত। তিনি বলেন দাবী ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের জীবনী যেন পাঠ্যপুস্তকে পরিসরে স্থান দেওয়া হয়। একই সাথে আব্দুল জব্বার ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন ও ফাঊন্ডেশনের স্থানে পৌছার জন্যে একটি পাকা রাস্তা করনের জন্যে সরকারের কাছে জোড় দাবী জানান।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের